শুক্রবার, ২৩ জুলাই ২০২১ ৮ই শ্রাবণ ১৪২৮
 
চলন্ত বাসে দল বেঁধে তরুণীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৬
প্রকাশ: ০৯:৩০ am ২৯-০৫-২০২১ হালনাগাদ: ০৭:১৪ pm ২৯-০৫-২০২১
 
 
 


ঢাকার আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে এক তরুণীকে (২২) দল বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (২৮ মে) রাত ১টার দিকে আশুলিয়া-সিঅ্যান্ডবি বাইপাস সড়কের আশুলিয়া গরুর হাট এলাকায় একটি মিনিবাস থেকে নারীর চিৎকার শুনে টহল পুলিশ গাড়িটি থামায়। এ ঘটনায় ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় আজ শনিবার সকালে ভুক্তভোগী তরুণী থানায় মামলা করেছেন।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন ঢাকার তুরাগ থানার গুলবাগ ইন্দ্রপুর ভাসমান গ্রামের মো. আরিয়ান (১৮), কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনা এলাকার সাজু (২০), বগুড়ার ধুনট উপজেলার খাটিয়ামারি এলাকার সুমন (২৪) ও একই এলাকার সোহাগ (২৫), বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার জিয়ানগর গ্রামের সাইফুল ইসলাম (৪০) এবং নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার ধামঘর এলাকার মনোয়ার (২৪)। তাঁরা সবাই তুরাগ থানার কামারপাড়া ভাসমান এলাকায় ভাড়া থেকে আবদুল্লাহপুর-বাইপাইল-নবীনগর মহাসড়কে মিনিবাস চালাতেন।

ভুক্তভোগী নারী নারায়ণগঞ্জে স্বামী ও সন্তান নিয়ে থাকেন। তিনি সেখানে একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক। তাঁর স্বামীর বাড়ি লালমনিরহাটে।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (২৮ মে) রাত ১টার দিকে আশুলিয়া-সিঅ্যান্ডবি বাইপাস সড়কের আশুলিয়া গরুর হাট এলাকায় একটি মিনিবাস থেকে নারীর চিৎকার শুনে টহল পুলিশ গাড়িটি থামায়। সে সময় গাড়ির ভেতরে থাকা ভুক্তভোগী মেয়েটি জানায়— তিনি (তরুণী) শুক্রবার (২৮ মে) সকালে চাষাড়া থেকে মানিকগঞ্জে বোনের বাসায় বেড়াতে যান। রাতে পুনরায় চাষাড়া যাওয়ার উদ্দেশে নবীনগর আসেন। পরে সেখানে তার পূর্বপরিচিত এলাকার ভাই নাজমুলের সঙ্গে দেখা হলে একসঙ্গে তারা টঙ্গী যাওয়ার জন্য একটি মিনিবাসে (ঢাকা মেট্রো জ-১১-১৬৪৮) উঠেন। বাসটি আব্দুল্লাহপুর যাওয়ার কিছু আগে সব যাত্রী নেমে যায়। পরে বাসটিতে থাকা তাকে ও তার পূর্বপরিচিত নাজমুলকে নামতে দেননি চালক ও হেলপার। পরর্বতীকালে ওই বাসটির হেলপারের সঙ্গে আরও চারজন বিভিন্ন জায়গা থেকে গাড়িটিতে উঠেন। পরে নাজমুলকে আটকে রেখে হেলপারসহ মোট ছয়জন চলন্ত বাসে তাকে গণধর্ষণ করে।

এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় আজ সকালে ভুক্তভোগী তরুণী ওই ছয়জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। রাতেই তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক অবস্থায় অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।

 
 

আরও খবর

 
 
 
 
 
 
 
 
©newsofbd24.com